বিনা অনুমতিতে মহানগরীর রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী রাখা যাবে না



সিলেট সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন এলাকায় রাস্তা দখল করে নির্মাণ সামগ্রী রেখে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি কারীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে এ অভিযান শুরু হয়। অভিযানে নগরীর মেন্দিবাগ এলাকায় রাস্তার একংশ দখল করে নির্মাণ সামগ্রী রাখার অপরাধে তিন প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা করে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানাকৃত প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে, বেঙ্গল সিরামিকস, আবুল হোসেন ও মুজিবুর রহমান।

সিলেট সিটি কর্পোরেশন জানায়, দীর্ঘ দিন থেকে মহানগরীর বিভিন্ন সড়কের ওপর ফেলে রাখা হচ্ছে নির্মাণ সামগ্রী। কোথাও কোথাও সড়ক দখল করেই চলছে নির্মাণ কাজ। এতে সংকুচিত হয়ে উঠছে সড়কগুলো। সৃষ্টি হচ্ছে যানজটের। ঘটছে দুর্ঘটনা। সিটি কর্পোরেশন থেকে বার বার এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করলেও রাস্তা দখল করে রাখছেন নির্মাণ সামগ্রী। একারনে বাধ্য হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে রাস্তায় নামেন সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। অভিযান শেষে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী নগরবাসীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন। মেয়র জানান, নগরীর রাস্তা ও সড়কে যত্রতত্রভাবে বালু ও পাথরের মতো নির্মাণ সামগ্রী ফেলে রাখার কারণে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন নগরবাসী। রাস্তায় রাখা এসব নির্মাণ সামগ্রী থেকে ধুলো উড়ছে প্রতিনিয়ত। ফলে সর্দি-কাশি সহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন নগরীর বাসিন্দারা।

সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, বিনা অনুমতিতে সড়কে ইট, বালু সহ কোন নির্মাণ সামগ্রী রাখা যাবে না। রাস্তায় নির্মাণ সামগ্রী রেখে স্থাপনা নির্মাণ করতে হলে নির্ধারিত ফি দিয়ে সিটি কর্পোরেশনের অনুমতি নিতে হবে। অন্যতায় রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি কারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অভিযানে এসময় সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবর, সহকারী প্রকৌশলী ইসমাইলুর রহমান সহ সিসিকের অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।